ফুটবল ভয়ংকর : ইতালীর প্রাচীনতম ফুটবল ম্যাচ!

নিখুঁত সহিংসতা আর খেলাধুলার এক মিশ্রণ, ক্যালসিও স্টরিকো যেন এমনই কিছু দেখালো দর্শনার্থীদেরকে। ফ্লোরেন্সের সান্তা ক্রসে ব্যাসিলিকা মাঠে পুর্নবয়ষ্ক একদল লোক এভাবেই লড়াই করে খেলে জিতেছিল ইতালীর প্রাচীনতম ফুটবল ম্যাচটি।

ঘটনাটি সেই ১৬ শতকের। ক্যালসিও স্টোরিকো বা ঐতিহাসিক ফুটবল ছিলো এক সুন্দর খেলা, কিন্তু সেই খেলায় আহত হয়ে চোখ ফুলিয়ে এবং কাঁধের হাড় মটকে ফেলা ছিল বেশ পরিচিত এক চিত্র।

এই খেলায় একেক দলে খেলোয়াড় থাকতেন ২৭ জন। লক্ষ হলো প্রতিপক্ষের জালে বল ঢুকিয়ে দেওয়া। কিন্তু খেলার নিয়ম বেশ চড়া। এতে লাথি, ঘুষি, মাথা দিয়ে আঘাত করা আর এমনকি কুস্তি করতে শুরু করে দেওয়াও ছিলো এ্যাটাক আর ডিফেন্সের অংশ।

এই খেলা ১০ বছর আগে এক সিজনের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়। ২০০৭ সালে প্রায় ৫০ জন খেলোয়াড় এক বিশাল বিবাদে জড়িয়ে পড়েছিলো খেলার মাঠে।

রবিবারে দলে দলে মানুষ সান্তা ক্রসে ব্যাসিলিকা মাঠের বালুময় প্রান্তর ঘিরে উম্মুখ হয়েছিলো, কারণ চারটি দল এই রেনেসাঁ যুগের খেলায় অংশ নেয়।

স্যান জিওভানি গ্রীনস এবং সান্তা মারিয়া নোবেলা রেডস নামের দুই দলের মাঝে এক ফাইনাল খেলার ফুটেজ থেকে দেখা যায় বেশ কিছু খেলার অংশ, যেখানে দেখা যায় খেলোয়াড়েরা একে অপরকে টেনে মাটিতে ফেলে দিচ্ছেন, কেউবা খালি হাতে ঘুষি মারতে শুরু করেছেন প্রতিপক্ষকে। স্থানীয় গণমাধ্যম থেকে জানা যায়, সেই ম্যাচে গ্রীনস দল জিতেছিলো সাড়ে দশ গোল দিয়ে, প্রতিপক্ষ দিয়েছিলো চার গোল।

খেলা শেষে নদীতীরে শ্যাম্পেন দিয়ে টোস্ট করে খেলোয়াড়েরা উদযাপন করেন। এমন উত্তেজনাপূর্ণ এক খেলার এই ধরণের উদযাপন নিতান্তই শান্ত প্রকৃতির।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *