এটিই কি ভালোবাসা দিবসের সবচেয়ে দামী উপহার?

লন্ডনে ৫,০০০ পাউন্ড মূল্যের একটি গোলাপের তোড়া বাজারজাত করা হয়েছে ভালোবাসা দিবসে প্রিয়জনকে উপহার দেওয়ার জন্য। বাংলাদেশী টাকার অংকে তার মান দাঁড়ায় প্রায় ৫ লাখ ৭৩ হাজার টাকা! প্রেমিকার প্রতি প্রেম জাহির করতে চাওয়া ধনী ক্রেতাদের কথা মাথায় রেখে লম্বা ডাটিসহ ৯৯৯ টি উন্নতমানের লাল নাওমি জাতের গোলাপ দিয়ে সাজানো হয়েছে এই তোড়াটি।

এই তোড়াটি বাজারজাত করেছে “অরকিডিয়া লন্ডন” নামের একটি দোকান। অতীতে চমৎকার সব অর্কিডের কারণে অ্যাওয়ার্ড জয়ী এই দোকানটি বেশ পরিচিত লন্ডনে। তারা এ বছর “মোন অ্যামোর” নামের এই অত্যন্ত দামী তোড়াটি বাজারজাত করেছে তিনটি আকারে, যার মধ্যে সবচেয়ে বড়টি কিনতে চাইলে খরচ করতে হবে ৪,৯৯৯.৯৯ পাউন্ড। এই পরিমাণ অর্থ করলে একটি অডি এ-৩ মডেলের গাড়ি কেনা সম্ভব।

দোকানটির একজন মুখপাত্র বলেন, “আমরা এমন একধরণের ক্রেতাদের জন্য এটি বানিয়েছি যাদের কাছে এই ফুলের তোড়াও সামান্য মনে হতে পারে। তারা সাধারণত এর চেয়েও দামী কিছু তাদের প্রিয়জনকে উপহার দিয়ে থাকবেন। লন্ডনে এমন ঘটনা খুব একটা অস্বাভাবিক নয় এবং আমাদের বেশ কিছু ক্রেতা আছেন যারা এটি কিনতে আগ্রহী।“

এই তোড়ার বিবরনে উল্লেখ করা হয়েছে যে গোলাপ এবং একটি গিফট কার্ডসহ র‍্যাপিং পেপারে সুন্দরভাবে মোড়া এই তোড়াটি ক্রেতাকে নিজে এসে নিয়ে যেতে হবে। তারা যদি এটি নিজেদের ঠিকানায় ডেলিভারী করাতে চান তবে তার সাথে গুনতে হবে আরো ৬.৯৫ পাউন্ড। এই চড়ামূল্য আসলে বছরের এই সময়ে লাল গোলাপের অসীম চাহিদারই প্রতিফলন ঘটায়। ভালোবাসা দিবসের আগে বিশ্বব্যাপী লাল গোলাপের মূল্য বৃদ্ধি পায় প্রচুর পরিমাণে।

দোকানের মুখপাত্র আরো বলেন, “সব ফুল ব্যবসায়ীর মত আমরাও বছরের এমন বিশেষ সময়ে ফুলের দাম পুননির্ধারন করেছি। তবে উন্নত জাতের এই গোলাপের দাম যাতে অতিরিক্ত না হয়, সে ব্যাপারে আমরা সতর্ক থেকেছি।“

ইউরোপ ও আমেরিকায় গোলাপের প্রধান সরবরাহের দেশগুলো হলো ইকুয়েডর, মেক্সিকো ও কলোম্বিয়া। বুধবারে ভালোবাসা দিবসে পর্যাপ্ত ফুল সরবরাহ করতে দেশগুলোর লাল গোলাপ চাষীদের মধ্যে ব্যস্ততা বেড়ে গিয়েছে কয়েক গুণ।

এই বাড়তি চাহিদার কারণে বছরের অন্য সব সময়ের চেয়ে এখন লাল গোলাপের দাম সবচেয়ে বেশি। সুপারমার্কেটে এখন এক ডজন গোলাপ কিনতে ইউরোপিয়ানদের সাধারণত গুনতে হয় ১০-১২ পাউন্ড, যা বর্তমানে দ্বিগুণেরও বেশি মূল্যে বিক্রি হচ্ছে। সুপারমার্কেটগুলো অবশ্য নিজেদের মাঝে প্রতিযোগিতা করে মূল্য কম ধার্য করার চেষ্টা করে থাকে। সেদিক দিয়ে সবচেয়ে সস্তায় গোলাপ বিক্রি করছে লিডল এবং আলদি নামের দুটি দোকান। তারা প্রতি ডজন গোলাপ বিক্রি করছে যথাক্রমে ৪ পাউন্ড এবং ৫ পাউন্ড মূল্যে। এসব গোলাপের ডাটি বেশ ছোট এবং অন্যান্য বড় দোকানগুলোর গোলাপের তুলনায় বেশ নিম্নমানের। তা সত্ত্বেও অধিকাংশ প্রেমিক-প্রেমিকার সাধ্যের ভিতরে আছে এগুলো।

“মোন অ্যামোর” নামের এই তোড়াটি অবশ্য পৃথিবীর ইতিহাসে সবচেয়ে দামী গোলাপের তোড়া নয়। ২০১৬ সালে অনলাইনভিত্তিক ফুল বিক্রয় এর দোকান “এরিনা ফ্লাওয়ার্স” ১,০০০ টি গোলাপ দিয়ে তৈরি ৫ ফুট লম্বা একটি তোড়া বিক্রি করেছিল ৯ হাজার পাউন্ডে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*