কেন ধুঁকছে পাটশিল্প? বিজেএমসি কেন লোকসানে চলছে?

বাংলাদেশ জুট মিলস কর্পোরেশন (বিজেএমসি) যেন পড়ে গেছে অন্তহীন খাদে। অর্থনৈতিক সংকট মেটানোর জন্য গত এক দশকে বিজেএমসি-কে ৭,৪৭৭ কোটি টাকা দিয়েছে সরকার। তারপরও হাত পাতা বন্ধ হয়নি। সম্প্রতি পাটকলগুলোর ৩২,৭৪০ শ্রমিক ও কর্মকর্তার বেতনভাতা পরিশোধের জন্য সরকারের কাছে ৩৩৭ কোটি টাকা চেয়েছে বিজেএমসি।

বার বার শুধু প্রতিশ্রুতি; কাঙ্ক্ষিত বেতন-বকেয়া পাচ্ছেন না পাটকল শ্রমিকরা

২০১৫ সালের ৭ সেপ্টেম্বর, অষ্টম জাতীয় বেতন স্কেল অনুমোদন দেয় মন্ত্রীসভা। সেবছরের জুলাই থেকে এটি কার্যকর হয়েছে প্রায় সব সরকারী অফিস ও কর্পোরেশনে। কিন্তু চার বছর পরও দেশের ২২টি রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলের ৬০ হাজার শ্রমিক এই বেতন স্কেল কার্যকরের অপেক্ষায় আছেন। অথচ পাট মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ জুট মিল কর্পোরেশনের অধীনে সব কর্মকর্তা-কমর্চারী নতুন স্কেলেই বেতন তুলছেন।